পরিচয় পর্ব

পরিচয় আর কি  মানুষ ব্লগিং করে না! স্ট্যাকওভারফ্লো, সিয়েসেস-ট্রিকস আরও কত! তারপর বাংলায়ও আছে অনেক টেক-ব্লগ সাইট। তো … আমি হইলাম গিয়া ফ্রন্ট-এন্ড ডেভলপার, মানে মোটামুটি লেবেলের আর কি, Xপার্ট না  অনেক অনেক দিন আগ থেইকাই ফ্রন্ট-এন্ড বিষয়ক ব্লগিং করার ইচ্ছা। ফেসবুকের বিভিন্ন পেইজ আর গ্রুপে করতাম মাঝে মাঝে। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতাম, ছোটখাট ট্রিকস্ শেয়ার করতাম। ঐ সময়ই ইচ্ছা ছিল আলাদা একটা ব্লগের মত করার, যেন সবগুলা লেখা এক জাগায় সাজানো থাকে। আর ফেসবুকে ভালভাবে ব্যাখ্যাও করা যায় না, ডেমো দেয়া যায় না ঠিকঠাক ভাবে। এই জন্য একটা সাইটের দরকার ছিল। অনেক দিন যাবত করবো করবো বলে করা হয় না।

ফাইনাইলি …. করতে পারলাম। এখন সময় নাই, এই জন্য একটা মোটামুটি টাইপ ওয়ার্ডপ্রেস থিম সেটাপ দিয়া কাজ চালাইতেছি। সময় এবং সুযোগ আসলে ইনশাআল্লাহ নিজে ডিজাইন এবং ডেভলপ করে এটাকে একটা স্পেশাল পার্সোনাল টাচ দেবো, দেখা যাক কি হয়।

 

এখন আমি PHP শিখতেছি। বিরা……ট দিগদারি ল্যাঙ্গুয়েজ। আগের দিনে আমরা যখন ছোট ছিলাম, তখন বিটিভিতে অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগে একটা lgbt সাইন আসতো আর ব্যাকগ্রাউন্ডে টুঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁটঁ করে একটা শব্দ হইত। PHP ক্লাসের কাজগুলা করতে করতে মাঝে মাঝে আমার কান মিউট হয়া যায় এবং মাথার মধ্যে সেই টুঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁটঁ সাউন্ডটা চলতে থাকে। এইটা কি শুধু আমার সাথে হয় নাকি সবার সাথেই হয় কে জানে! 

 

তো যখন আমার মাথা এই টুঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁউঁটঁ মুডে চইলা যায়, তখন মাঝে মাঝে ফ্রন্ট-এন্ড রিলেটেড টিউট আর ট্রিক্সগুলা শেয়ার করতে মুঞ্চায়, এই আর কি। সেই হিসেবে ব্লগের নাম হওয়া উচিত ছিল টুট-ব্লগ। তবে যেহেতু ফ্রন্ট-এন্ড ডেভলপমেন্টে CSS একটা অত্যাবশ্যকীয় ল্যাঙ্গুয়েজ, তাই CSS এর নামে নাম রাখা। আর যেইহেতু এখানে কোন সিরিয়াস টপিক নিয়া আলোচনা হবে না, যেমন- ইহা হয় একটি ক্যাছক্যাডিং ইস্টাইল শীট, সেইহেতু ইহার এক্সটেনশান রাখা হইল- .fun

 

ওকে … যাদের ভাল্লাগে তারা আইসা ঘুরাঘুরি কইরেন, চাইলে বন্ধু-বান্ধব নিয়া আসতে পারেন, নো প্রোবলেম। ইহা একটি উন্মুক্ত অন্তর্জাল-বিদ্যালয়। যে কেহু এখানে আসতে পারে